শিবচর ও চীফ হুইপ নূর-ই আলম চৌধুরীকে নিয়ে ফেসবুকে এফবিসিসিআই সভাপতির স্মৃতি জাগানিয়া পোস্ট

শিবচর ও চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরীকে নিয়ে স্মৃতি বিজড়িত ফেসবুক পোস্ট করেছেন দেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই র সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম। তিনি শিবচরকে বাংলাদেশের অন্যতম জনকেন্দ্রিক সংগঠিত নির্বাচন কেন্দ্র; ইতিহাস, স্বাধীনতা, যোগাযোগ, সংস্কৃতি, ইসলাম, শিক্ষা কেন্দ্র, স্বাস্থ্য কেন্দ্র, উদ্ভাবন, নবায়নযোগ্য শক্তি জ্বালানীর ব্যবহার, টেকসই উন্নয়নস্থল হিসেবে উল্লেখ করেন। এসময় তিনি ১৯৯১ সালের শিবচরের উপনির্বাচনে স্মৃতিসহ নানান স্মৃতি তার পোস্টে উল্লেখ করেন। শুক্রবার চীফ হুইপ নূর-ই-আলম-চৌধুরী স্বস্ত্রীক পরিবারের সদস্য,নিকট স্বজনদের নিয়ে শিবচরের দর্শনীয় স্থানগুলো পরিদর্শন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ, সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুনির চৌধুরী, আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈমসহ অনেকেই।
ফেসবুক পোস্টের ইংরেজী থেকে বাংলায় রুপান্তর ঃ
বাংলাদেশের অন্যতম জনকেন্দ্রিক সংগঠিত নির্বাচনকেন্দ্র( শিবচর); ইতিহাস, স্বাধীনতা, যোগাযোগ, সংস্কৃতি, ইসলাম, শিক্ষা কেন্দ্র, স্বাস্থ্য কেন্দ্র, উদ্ভাবন, নবায়নযোগ্য জ্বালানী শক্তি ব্যবহার, টেকসই উন্নয়নস্থলসহ ইত্যাদি। আমি স্মরন করি ১৯৯১ সাল,বারবারের মাননীয় সংসদ সদস্য, বর্তমান চীফ হুইপ নূর-ই- আলম চৌধুরী যে তার প্রথম নির্বাচনে ছিলেন তৎকালীন সময়ে ছিলেন সর্বকনিষ্ঠ প্রার্থী( ২৫-২৬ বছর বয়সী) এবং পরবর্তীতে নির্বাচিত সর্বকনিষ্ট সংসদ সদস্য। তিনি তার পিতা মাতার জৈষ্ঠ সন্তান। তার বাবা মুক্তিযুদ্ধকালীন কোষাধ্যক্ষ মরহুম ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী তিনবারের নির্বাচিত(১৯৭০,১৯৭৩ ও ১৯৯০) সাংসদ। স্বাধীনতা যুদ্ধের নায়ক ১৯৯১ সালে অকাল মৃত্যুবরণ করেন।
১৯৯১ সালে নির্বাচিত হয়ে শিবচরের এই তরুন রাজনীতিবিদের তার সংসদীয় আসন শিবচরকে বিশ্বে উন্নয়নের বিস্ময়ে পরিনত করার পথ কোনভাবেই মসৃন ছিল না৷ মহান আল্লাহ আমাদের সকল জনপ্রতিনিধি ও স্ব স্ব সরকারি বেসরকারি ক্ষেত্রে কর্মরত সকলের সেবার উদ্দেশ্য সাধনে আমাদের জাতিকে বরকত দান করুন। এটা ছিল একটি আলোকিত দিনের ভ্রমন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *