মাদারীপুরে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তর শহীদ মিনার উদ্বোধন

বৃহস্পতিবার বিকেলে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তর শহীদ মিনার উদ্বোধন করা হয়েছে। সদর উপজেলার শিরখাড়া ইউনিয়নের এস.বি.কে আদেলউদ্দিন হাওলাদার স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে নির্মিত এ শহীদ মিনার উদ্বোধন উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান খান এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ওবাইদুর রহমান খান, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন সেলিম, শিরখাড়া ইউনিয়নের পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মজিবুর রহমান হাওলাদার। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন এস.বি.কে আদেলউদ্দিন হাওলাদার স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. শহীদুল ইসলাম ।
জানা গেছে, মাদারীপুর সদর উপজেলার শিরখাড়া ইউনিয়নের নির্মিত শহীদ মিনার-এর উচ্চতা ৪৪ ফুট। ১৯৫২ সালের মহান ভাষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য জাতীয় শহীদ মিনারের আদলে নির্মিত শহীদ মিনারটিকে দেশের দ্বিতীয় বৃহৎ শহীদ মিনার বলে দাবী করেছেন প্রতিষ্ঠাতারা। মো. নাছিরউদ্দিন দিদারের নকশায় তিন বছর ধরে নির্মিত শহীদ মিনারটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে প্রায় এক কোটি টাকা।
মাদারীপুর সদর উপজেলার শিরখাড়া ইউনিয়নের এস.বি.কে আদেলউদ্দিন হাওলাদার স্কুল এন্ড কলেজটি বিগত ২০১৫ সালে প্রায় ৬ একর জমি উপর প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এই সুবিশাল আয়তনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঠের এক পাশে ৪৪ ফুট উচ্চতা, ৫৫ ফুট প্রস্থ ও ৮৫ ফুট দৈর্ঘ্যরে বেদি নিয়ে নির্মিত হয়েছে জাতীয় শহীদ মিনারের আদলে এক সুউচ্চ শহীদ মিনার।
এলাকাবাসী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা জানিয়েছেন, মহান ভাষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য এমন শহীদ মিনার নির্মিত হওয়ায় গর্বিত এলাকাবাসী। শহীদ মিনারটি দেশের দ্বিতীয় বৃহৎ শহীদ মিনার বিবেচনা করে এলাকার মানুষের মধ্যে বিরাজ করছে ব্যাপক আগ্রহ ও উৎসাহ।
শিরখাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও শহীদ মিনারের প্রতিষ্ঠাতা মো. মজিবুর রহমান হাওলাদার বলেন, ‘মহান ভাষা আন্দোলনে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য এমন শহীদ মিনার নির্মাণের চিন্তা দীর্ঘদিনের। সেই উপলব্ধি থেকে শহীদ মিনারটি নির্মাণ করতে পেরে আমি আনন্দিত।’
এস.বি.কে আদেলউদ্দিন হাওলাদার স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘মহান ভাষা আন্দোলনের শহীদদের সম্মানার্থে সুবৃহৎ শহীদ মিনারটি আমাদের স্কুল এন্ড কলেজে প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় আমরা গর্বিত।’
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান খান এমপি বলেন, ‘এমন সুউচ্চ শহীদ মিনার উদ্বোধন করতে পেরে আমি গর্বিত। শহীদ মিনারের চেতনা আমাদের সকল মানুষকে ধারণ করতে হবে।’
স্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *